Sreelekha-Shasanka: ডেটিং আসল লক্ষ্য? দত্তক কুকুরের দায় ঝেড়ে ফেলে শ্রীলেখাকে ঠকালেন শশাঙ্ক!

Loading...

শ্রীলেখা মিত্রের সঙ্গে ডেট করবেন, এটাই কি ছিল তাঁর এক মাত্র লক্ষ্য? তার জন্য অভিনেত্রীর শর্ত মেনে অনাথ পথপশুকেও দত্তক নিতে রাজি হয়েছিলেন শশাঙ্ক ভাভসার। নির্দিষ্ট দিনে তিনি আর শ্রীলেখা এক সঙ্গে সময় কাটান কফি শপে। কিছু দিন কাটতেই আসল চেহারা প্রকাশ্যে রেড ভলান্টিয়ার্সের। খবর, শশাঙ্কের দত্তক নেওয়া সেই সারমেয় দুর্ঘটনায় মৃত! বিদেশ থেকে সামাজিক পাতায় সে কথা জানিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন অভিনেত্রী। তাঁর ডেট-সঙ্গীকে নেটমাধ্যমে হুমকি দিয়ে বলেছেন, ‘এর শেষ দেখে ছাড়ব শশাঙ্ক’! যদিও সমস্ত অভিযোগ নস্যাৎ করে আনন্দবাজার অনলাইনকে শশাঙ্ক জানিয়েছেন, রাস্তার ধারে তাঁর বাড়ি। তাই কখন পথপশুটি বেরিয়ে পড়েছে তিনি খেয়াল করেননি। ইতিমধ্যেই শ্রীলেখার কাছে লিখিত ভাবে অনিচ্ছাকৃত অপরাধের দায় স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি।

চলতি বছরের ১৪ জুলাই পথপশুদের আশ্রয় দেওয়ার ভাবনা থেকেই কফি ডেটে যাওয়ার কথা নেটমাধ্যমে জানান শ্রীলেখা মিত্র। কিছুক্ষণের মধ্যেই অভিনেত্রীর ডাকে সাড়া দেন শশাঙ্ক ভাভসর নামের এক নেটাগরিক। তিনি শ্রীলেখার শর্ত মেনে এক অনাথ পথপশুকে দত্তক নেওয়ার কথাও জানান। আনন্দবাজার অনলাইনকে এ খবর জানিয়ে উচ্ছ্বসিত শ্রীলেখা সেই সময় বলেছিলেন, ‘‘এত দ্রুত সাড়া পাব ভাবিনি। খুব খুশি। কফি ডেটে যাওয়া আসল কথা নয়। এর মাধ্যমে আশ্রয়হীন পথপশু আশ্রয় পাবে।’’

Loading...

এক মাস পেরোতেই তাঁর স্বপ্ন যে এ ভাবে ব্যর্থ হবে ভাবতেই পারেননি অভিনেত্রী. শ্রীলেখা এই মুহূর্তে জুরিখে, ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবে তাঁর অভিনীত ছবি ‘ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন কলকাতা’ আমন্ত্রণ পেয়েছে। সেখান থেকেই তিনি ক্ষোভ উগরে দেন সামাজিক পাতায়। ভর্ৎসনা করে লেখেন, ‘শশাঙ্ক তুমি না রেড ভলান্টিয়ার্স! আমার কাছ থেকে যে কুকুর ছানাটিকে নিলে তার হদিশ দাও। এত বড় সাহস তোমার হয়?’ এই জায়গা থেকেই শশাঙ্কের বক্তব্য, ‘‘রেড ভলান্টিয়ার্সের সদস্য হিসেবে কঠিন সময়ে সারাক্ষণ সবার পাশে আছি। আমার হাত থেকেই এত বড় দুর্ঘটনা ঘটবে বুঝতে পারিনি। ডেটের লোভে শ্রীলেখাকে মিথ্যে আশ্বাস দেব, এত হীন আমি নই’’।

শশাঙ্কের ফেসবুক পোস্ট

শশাঙ্কের ফেসবুক পোস্ট

Loading...

সামাজিক পাতায় ইতিমধ্যেই দুর্ঘটনায় দত্তক নেওয়া পথপশুর মৃত্যুর জন্য নিজেকে দায়ী করেছেন অভিনেত্রী। নেটমাধ্যমে লিখেছেন, ‘আমি নিজেকে ক্ষমা করব না এই বাজে ছেলেটিকে ভরসা করে’. ইতিমধ্যেই শ্রীলেখার সেই পোস্ট ভাইরাল. শশাঙ্কের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছে একাধিক সংবাদমাধ্যম. সেই জায়গা থেকে বছর ত্রিশের অভিযুক্ত যুবকের আফসোস, ‘‘খুব খারাপ লাগছে আমার জন্য রেড ভলান্টিয়ার্সের বদনাম হচ্ছে’’।

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *