Siddharth Shukla: হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে ‘বিগ বস’ জয়ী অভিনেতা সিদ্ধার্থ শুক্ল প্রয়াত, হতবাক মায়ানগরী

Loading...

হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত অভিনেতা সিদ্ধার্থ শুক্ল। তাঁর বয়স হয়েছিল ৪০ বছর। হাসপাতাল সূত্রে খবর, ঘুমের আগে একটি ওষুধ খেয়েছিলেন তিনি। এর পরে আর ঘুম থেকে ওঠেননি সিদ্ধার্থ। তাঁর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ বলিউড।

কালার্স চ্যানেলের ‘বালিকা বধূ’ ধারাবাহিকের মাধ্যমে পরিচিতি পান সিদ্ধার্থ। সেই ধারাবাহিকের নায়িকা আনন্দীর (প্রত্যুষা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিনীত চরিত্র) দ্বিতীয় স্বামী শিবরাজ শেখরের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন সিদ্ধার্থ। এর পরে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি। ২০১৪ সালে ‘হাম্পটি শর্মা কি দুলহনিয়া’ ছবিতে আলিয়া ভট্ট এবং বরুণ ধবনের সঙ্গে অভিনয় করেছিলেন তিনি।

Loading...

‘সাবধান ইন্ডিয়া’ এবং ‘ইন্ডিয়াজ গট ট্যালেন্ট’ -এর মতো রিয়্যালিটি শো-তেও সঞ্চালক হিসেবে বেশ কিছু দিন কাজ করেছিলেন সিদ্ধার্থ। এর পর ২০১৯ সালে ‘বিগ বস’-এর ১৩ তম সিজনে প্রতিযোগী হিসেবে অংশগ্রহণ করেন সিদ্ধার্থ। সেই সময় তাঁকে নিয়ে প্রবল চর্চা হয়। সেই রিয়্যালিটি শোয়ে জয়ী হয়েছিলেন তিনি। এই শোয়ের সুবাদেই সহ –প্রতিযোগী শেহনাজ গিলের সঙ্গে বিশেষ সম্পর্ক গড়ে ওঠে সিদ্ধার্থের। নেটাগরিকরা তাঁদের একসঙ্গে ‘সিডনাজ’ বলে ডাকতেন।

সিদ্ধার্থের আকস্মিক মৃত্যুতে স্তম্ভিত বলিউড। এ ভাবে সিদ্ধার্থের হঠাৎ চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছেন না তাঁর সহকর্মীরা। গায়ক টোনি কক্কর টুইটারে লিখেছিলেন, ‘দয়া করে কেউ আমাকে বলুন এই খবরটি সত্যি নয়। আমি এটা বিশ্বাস করতে পারছি না।’

Loading...

আরমান মালিকও সিদ্ধার্থের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে হতবাক। সিদ্ধার্থ যে পৃথিবীতে আর নেই, টোনির মতো আরমানও এখনও মেনে নিতে পারছেন না। একই ভাবে বিন্দু দারা সিংহ লিখেছেন, ‘খুব তাড়াতাড়ি চলে গেলে ভাই। তুমি সারা জীবন আমাদের স্মৃতিতে উজ্জ্বল থাকবে। তোমার শূন্যতা আমাদের কাছে অপূরণীয়। ‘বিগ বস’ তোমার মতো জয়ী পায়নি। আর পাবেও না। মনে হচ্ছে এ বার আমাদের সত্যিই খারাপ নজরে বিশ্বাস করতে হবে।’

মডেলিং দুনিয়া থেকে এসে প্রথমে ছোটপর্দা এবং তার পরে বড় পর্দায় নিজের জায়গা করে নিয়েছিলেন সিদ্ধার্থ। সম্প্রতি ‘ব্রোকেন বাট বিউটিফুল’ ওয়েব সিরিজেও অভিনয় করেছিলেন তিনি। সিদ্ধার্থের আচমকা চলে যাওয়ায় স্তম্ভিত মায়ানগরী।

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *