Sayani Ghosh: কে দলের হয়ে খেলেছে, কে বিপক্ষে, সবাই জানে, ভোটে হারের জন্য অন্তর্ঘাতই দায়ী: সায়নী

Loading...

দলের কর্মীদের একাংশের অন্তর্ঘাতের জেরেই নির্বাচনে পরাস্ত হয়েছেন তাঁরা। বিধানসভা ভোটের ফল প্রকাশের প্রায় চার মাসের মাথায় এমনই দাবি করলেন আসানসোল দক্ষিণ ও কুলটি কেন্দ্রের দুই তৃণমূল প্রার্থী। আসানসোল দক্ষিণে তৃণমূলের প্রার্থী ছিলেন বর্তমানে দলের যুব সভানেত্রী সায়নী ঘোষ। অন্য দিকে, কুলটিতে প্রার্থী ছিলেন উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়। সায়নী পরাজিত হন বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পালের কাছে। উজ্জ্বলকে হারিয়েছিলেন বিজেপি-র অজয় পোদ্দার। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে দু’জনেই অন্তর্ঘাতের তত্ত্ব তুলে ধরেছেন।

সোমবার আসানসোলে রবীন্দ্রভবনে দলীয় সভায় যোগ দেন সায়নী, উজ্জ্বল-সহ বর্ধমান জেলা তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। সেখানে বক্তব্যের শুরুতে সায়নী খেলা হবে স্লোগান তুলে বলেন, ‘‘কিছু ভাল খেলা হয়েছে। কিছু খারাপ খেলা হয়েছে। তুমিও জানো, আমিও জানি, কে ঠিক করে খেলেছে, কে ভুল করে খেলেছে। কে দলের হয়ে খেলেছে, কে দলের বিরুদ্ধে খেলেছে। সব থেকে বেশি কর্মীরা জানেন।’’ সায়নীর মতে অনেকেই ভোটের ফলের দিকে তাকিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে চেয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘‘অনেকে পাঁচিলের উপরে উঠে বসেছিলেন। ‘অব কি বার, দোসো পার’, এই স্লোগানটি তাঁরা সামনে রেখেছিলেন। নরেন্দ্র মোদী দু’শো পার হলে, তার দিকে ঝাঁপিয়ে পড়তেন, আবার দিদি দু’শো পার হলে, তাঁর দিকে। শেষ পর্যন্ত কী হল, সেটা তো সবাই জানেন।’’ ওই সভা থেকেই কুলটির তৃণমূল প্রার্থী উজ্জ্বলও অন্তর্ঘাতের প্রসঙ্গ তুলেছেন।

Loading...

সভা থেকে বেরিয়ে পরে সায়নী বলেন, ‘‘এ কথা সকলেই জানেন, কারা ভোটের সময় দু’নৌকায় পা দিয়ে চলেছেন। এ বিষয়ে দল যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার নেবে।’’

অন্য দিকে উজ্জ্বল বলেন, ‘‘দলের মধ্যে অন্তর্ঘাত হয়েছে। কেউ না কেউ করেছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সুন্দর করে দলটাকে তৈরি করেছেন। আমরা যদি সেটাকে নষ্ট করি, তা হলে কি ঠিক হবে?

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *