Nusrat Jahan: গভীর রাতে নুসরত হাসপাতালে? হবু মা-কে ঘিরে ধোঁয়াশা আর নিরাপত্তার বলয়

Loading...

ঘড়িতে ১০টা ৪০। বুধবার রাতে পার্ক স্ট্রিটের এক বেসরকারি হাসপাতালে ঢুকে পড়ল দু’টি সাদা গাড়ি। কালো কাচ দেওয়া প্রথম গাড়িতে সম্ভবত ছিলেন নুসরত জাহান। এমনটাই অনুমান করছেন হাসপাতালে ভিড় করা অনুরাগীরা। ঠিক পিছনের গাড়িতেই ছিলেন নিরাপত্তারক্ষীরা। সবাই যখন নুসরতকে গাড়ি থেকে নামতে দেখার অপেক্ষায়, তখনই নুসরতের এক নিরাপত্তারক্ষী বললেন, ‘‘আপনারা এত ভিড় করে আছেন, ম্যাডাম নামতে চাইছেন না।’’ কিছু ক্ষণ অপেক্ষা করার পরেও দেখা গেল, ‘ম্যাডাম’ নামলেন না। বন্ধ হয়ে গেল গেট। তার কিছু ক্ষণের মধ্যেই সাদা গাড়ি বেরিয়ে গেল হাসপাতাল থেকে। গাড়িতে কে‌উ ছিলেন না।

তা হলে কি নুসরত হাসপাতালে ভর্তি হলেন? তৈরি হল প্রশ্ন। কারণ তাঁকে গাড়ি থেকে নামতে দেখতে পাওয়া গেল না।

Loading...

বুধবার সকাল থেকেই নুসরতের হাসপাতালে ভর্তি নিয়ে মশগুল ছিল টলিপাড়া। কখন কোন সময়ে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হবেন, সন্তানের জন্ম দেবেন, তা নিয়ে ইন্ডাস্ট্রিতে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু আনন্দবাজার অনলাইন আগেই জানিয়েছিল, নুসরত বুধবার ১০টায় হাসপাতালে ভর্তি হবেন।

নুসরতের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করতে না পেরে বুধবার যশ দাশগুপ্তকে ধাওয়া করে সংবাদমাধ্যম। শিলাদিত্য মৌলিকের নতুন ছবি ‘চিনে বাদাম’-এর মহরত হয় বুধবার। সেখানে এনা সাহার সঙ্গে যশকেও দেখা যায়। নুসরত প্রসঙ্গে যশ আনন্দবাজার অনলাইনকে বলেছেন, ‘‘সকাল থেকে ভুয়ো খবর ছড়িয়েছে নুসরত হাসপাতালে ভর্তি হয়ে গিয়েছে। ও ভর্তি হলে, সন্তানের জন্ম দিলে কেন সেটা চেপে রাখব! তাছাড়া, সব কথা আমি একা বলব কেন? আমার সঙ্গিনীরও হয়তো কিছু বলার থাকতে পারে। সেটা ওর মুখ থেকে শোনাই বোধহয় ভাল।’

Loading...

যদিও যশের সঙ্গিনী মুখ খুলতে নারাজ। বুধবার বিকেলে যশের সঙ্গেই নিজের বাড়ি থেকে এক পলকে বেরিয়ে যান নুসরত। কালো কাচ ঢাকা গাড়িতে তাঁর মুখ দেখতে পাওয়া যায়নি। কিন্তু এই যাত্রায় স্টিয়ারিং যে যশের হাতেই ছিল, তা স্পষ্ট বোঝা গিয়েছে।

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *