Mamata-Sitaram-কে মেলালেন Sonia, BJP বিরোধী জোটে পথ চলা শুরু TMC-CPM-র?

Loading...

জাতীয় স্তরে বিজেপি বিরোধী মঞ্চে তৃণমূলের সঙ্গে থাকতে সিপিএমের যে আপত্তি নেই তা ইতিমধ্যেই স্পষ্ট করে দিয়েছেন বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্ররা। শুক্রবার ১৯ বিরোধী দলের বৈঠকেও দেখা গেল সেই ছবি। ভার্চুয়াল স্ক্রিনে একই ক্রমে থাকলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) ও সীতারাম ইয়েচুরি (Sitaram Yechury)।

‘বিজেমূল’ ভুল স্বীকারের পর কাকাবাবুর জন্মদিন উপলক্ষে সেমিনারে সূর্যকান্ত বলেছিলেন,’বিজেপির বিরুদ্ধে লড়তে গেলে সঙ্গে নিতে হবে সবাইকে। সুতরাং তৃণমূলকে নিতেও হবে। সারা দেশে বিরোধীরা একজোট হতে পারলে ভালো হয়।’ তারও আগে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু বলেছিলেন,’বিজেপি ছাড়া যে কোনও দলের সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত। এর পর আর কোনও কথা আছে কি?’ অন্যদিকে মমতাও শর্ত দিয়েছিলেন,’সিপিএমের বোঝা উচিত কে ওদের প্রধান শত্রু। কেরলে সেটা করতে পেরেছে ওরা। বাংলায় বিষয়টি স্পষ্ট করতে হবে।’ সেই বিজেপি বিরোধিতার মঞ্চেই একসঙ্গে এলেন দুই দলের কাণ্ডারি। যা ২০২৪ সালে জাতীয় স্তরে তৃণমূল-সিপিএম জোটের সূত্রপাত বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ।      
           
সকল বিরোধীদের এক মঞ্চে আনা চাট্টিখানি কথা নয়! তা বোঝেন সনিয়া গান্ধীও। শুক্রবার বৈঠকে তাই কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভানেত্রী জানান,’আমাদের সকলের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। কিন্তু এটাই সময় যখন দেশের স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে তার ঊর্ধ্বে উঠতে হবে। এখন থেকে আমাদের একটাই লক্ষ্য- স্বাধীনতা সংগ্রামের নীতি এবং সংবিধানের মূল্যবোধগুলি পাথেয় করে চলবে এমন সরকার গঠন।’                             
         
জাতীয় স্তরে জোট হলেও রাজ্যে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই চলবে বলে জানিয়েছিলেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বরাবরই সওয়াল করে আসছেন, একের বিরুদ্ধে এক প্রার্থী দাঁড় করাতে হবে। যে যেখানে শক্তিশালী বাকিরা তাকে সমর্থন করবে। সনিয়ার পরামর্শ মেনে বাধ্যবাধকতা কাটিয়ে তৃণমূল এবং সিপিএম-কে কি বাংলায় এক মঞ্চে দেখা যাবে নিকট ভবিষ্যতে? অনেকেই বলছেন,’রাজনীতিতে পাকাপাকি হ্যাঁ বা না হয় না। বরং এটা আসলে সম্ভাবনার শিল্প।’

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *