AFC Cup: রয় কৃষ্ণ, ডেভিড উইলিয়ামসদের নিয়ে নতুন করে মুগ্ধ এটিকে মোহনবাগান কোচ হাবাস

Loading...

জয়ের হ্যাটট্রিক হল না। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের বসুন্ধরা কিংসের বিরুদ্ধে ড্র করে এএফসি কাপের নক-আউটে পৌঁছে গেল এটিকে মোহনবাগান। তবে শেষ ম্যাচ না জিতলেও ফুটবলারদের লড়াকু মনোভাবে খুশি আন্তোনিয়ো লোপেজ হাবাস।

ম্যাচের শেষে স্প্যানিশ কোচ বলেন, “এটা যে কঠিন ম্যাচ হবে সেটা আগে থেকে জানতাম। কিন্তু পুরো ৯০ মিনিটের খেলা যদি বিচার করেন তাহলে আমরা অনেক ভাল খেলেছি। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ম্যাচে আমাদের প্রাধান্য ছিল। অনেক গোল করার সুযোগ চলে এলেও ফুটবলারদের পেশাদারি মানসিকতায় আমি মুগ্ধ ও গর্বিত।”

Loading...

২৮ মিনিটে ফার্নান্ডেজের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশের ক্লাব। ৬২ মিনিটে সবুজ-মেরুনকে সমতায় ফেরান ডেভিড উইলিয়ামস। ফলে সেই গোলের সুবাদে সাউথ জোনের বিজয়ী দল হয়ে সেমিফাইনালে চলে গেল সবুজ-মেরুন। তবে এগিয়ে থাকলেও প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময় বসুন্ধরা প্রথম ধাক্কা খায়। বাড়তি ফাউল করার জন্য মিডফিল্ডার সুশান্ত ত্রিপুরাকে সরাসরি লাল কার্ড দেখান রেফারি। সেই সুযোগে কোলাসোর পাস থেকে গোল করে সমতা ফেরান অজি স্ট্রাইকার।

সবুজ-মেরুনকে নিয়ে গর্বিত হাবাস। ফাইল চিত্র

বিপক্ষকে রুখে দিয়ে হাবাস বলেন, “বসুন্ধরার সীমাবদ্ধতা জানতাম। প্রথমার্ধে ওরা বলের জন্য মরিয়া হয়ে লড়বে, সেটাও জানতাম। সেই জন্য পিছিয়ে থাকলেও চিন্তা করিনি। ওরা শরীর নির্ভর ফুটবল খেলেছে। তাই একজন লাল কার্ড দেখেছে। এই সংখ্যাটা বাড়তেও পারত। মাত্র ২০ দিনের অনুশীলনে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা খেলা মোটেও সহজ নয়। এর মধ্যে আবার হুগো বৌমস ছিল না। তবে বাকিরা ওর অভাব টের পেতে দেয়নি।”

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *