সোডা বা কোল্ড ড্রিঙ্কের প্রতি আসক্তি থাকলে এই প্রতিবেদনটি অবশ্যই পড়ুন!

Loading...

পিৎজা, বার্গার, ফ্রেঞ্চফ্রাই বা এমন কোনও ফাস্টফুডের পাশে সফ্ট ড্রিঙ্ক না-থাকলে খাওয়ার আনন্দ পুরো হয় না। আপনিও যদি ইচ্ছে হলেই যখন তখন সফ্ট ড্রিঙ্ক, সোডা বা কোল্ড ড্রিঙ্ক পান করে থাকেন, তা হলে এখনই সাবধান হন। কারণ এই তরল পানীয়গুলি স্বাস্থ্যের কোনও উপকারে তো লাগেই না, বরং ওজন বৃদ্ধি, মধুমেহর ঝুঁকি-সহ একাধিক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। নিয়মিত সফ্ট ড্রিঙ্ক পানের ফলে কোন কোন সমস্যা দেখা দিতে পারে, তা জেনে নিন—

ওজন বৃদ্ধি
কোল্ড ড্রিঙ্ক, সোডা ও সফ্ট ড্রিঙ্ক যে ওজন বৃদ্ধি করে, এ কথা কারও অজানা নয়। এই সমস্ত পানীয়য়ে প্রচুর পরিমাণে শর্করা থাকে, যার ফলে দ্রুত ওজন বৃদ্ধি পেতে পারে। কোকা-কোলার একটি রেগুলার ক্যানে ৮ টেবিল চামচ চিনি থাকে। কোল্ড ড্রিঙ্ক আপনার ইচ্ছা মেটাতে পারে, তবে পেট ভরবে না। এই পানীয় কিছু ক্ষণের জন্য আপনার ক্ষিদে চেপে দিলেও পরে প্রয়োজনাতিরিক্ত খেয়ে ফেলবেন।

Loading...

ফ্যাটি লিভার
পরিশোধিত চিনির দুটি প্রধান উপাদান হল- গ্লুকোজ ও ফ্রুক্টোজ। শরীরের কোষের মাধ্যমে গ্লুকোজের বিপাক সম্পূর্ণ হলেও ফ্রুক্টোজের বিপাক পূর্ণ হয় শুধু মাত্র লিভারের মাধ্যমে। সফ্ট ড্রিঙ্কে উপস্থিত অত্যধিক পরিমাণে ফ্রুক্টোজ চাপ বাড়াতে পারে। এর ফলে লিভার ফ্রুক্টোজকে ফ্যাটে পরিণত করে দেয়। এই ফ্যাট লিভারে জমতে থাকে এবং অবেশেষে দেখা দেয় ফ্যাটি লিভার। এই রোগ যে বিপজ্জনক তা কারও অজানা নয়।

ডায়বিটিসের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে
রক্ত থেকে কোষে শর্করা পৌঁছে দেওয়াই ইনসুলিন হরমোনের প্রধান কাজ। সফ্ট ড্রিঙ্কের মাধ্যমে প্রত্যহ শর্করা গ্রহণ করতে থাকলে, কোষগুলি ইনসুলিনের কার্যকরী ক্ষমতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে পারবে। সোডায় প্রচুর পরিমাণে চিনি থাকায়, এতে উপস্থিত ফ্রুক্টোজ ইনসুলিনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তোলার ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। অত্যধিক পরিমাণে সফ্ট ড্রিঙ্ক পান করলে টাইপ-২ ডায়বিটিজ দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে। একাধিক সমীক্ষায় সোডা পান ও টাইপ-২ ডায়বিটিজের মধ্যে সম্পর্ক খুঁজে পাওয়া গিয়েছে।

Loading...

অপুষ্টিকর
মিনারেল বা কোনও পুষ্টি উপাদানই সফ্ট ড্রিঙ্কের মধ্যে থাকে না। ১ বোতল সফ্ট ড্রিঙ্কে প্রায় ১৫০ থেকে ২০০ ক্যালরি থাকলেও, কোনও মিনারেল ও পুষ্টি উপাদান থাকে না। বরং থাকে শুধু শর্করা ও ক্যালরি। এই চিনি শরীরে ডোপামাইন নিঃসৃত করে আপনার সফ্ট ড্রিঙ্ক পানের ইচ্ছা মেটায়। তবে এটি ক্রমশ সফ্ট ড্রিঙ্কের প্রতি আসক্ত করে তোলে।

দাঁত ক্ষয় করে
দাঁতের পক্ষে এই পানীয় বিপজ্জনক এবং এর ফলে দাঁত ক্ষয় হতে পারে। সোডার মধ্যে ফসফরিক অ্যাসিড ও কার্বোনিক অ্যাসিড থাকে, যা ভবিষ্যতে দাঁতের এনামেল নষ্ট করতে পারে। অ্যাসিড ও শর্করার মেলবন্ধনের ফলে মুখে ব্যাক্টিরিয়া সংক্রমণের উৎকৃষ্ট পরিবেশ সৃষ্টি হয়। এ কারণে দাঁতে ক্যাভিটি দেখা দিতে পারে।

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *