ফের মাসপয়লায় বেতন পেলেন না বিশ্বভারতীর কর্মীরা, আন্দোলনের জেরে নিয়মভঙ্গ

Loading...

অগস্ট গড়িয়ে সেপ্টেম্বরে পা। কিন্তু মাসপয়লায় বেতন পেলেন না বিশ্বভারতীর কর্মীরা। অন্যান্য মাসের প্রথম দিন বেতন হলেও, এ বার সেই রেওয়াজ ভেঙেছে। ছাত্র আন্দোলনে উত্তপ্ত শান্তিনিকেতন। সেই জল গড়িয়েছে আদালতেও। এই পরিস্থিতির জেরেই বুধবার বেতন হয়নি বলে অভিযোগ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকদের একাংশের। তাঁদের দাবি, উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর আমলে এমন ঘটনা ঘটল দ্বিতীয় বার। এর পিছনে প্রতিহিংসাই দেখছেন অধ্যাপকদের ওই অংশ।

তিন পড়ুয়াকে বহিষ্কারের জেরে অশান্ত শান্তিনিকেতন। উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করছেন পড়ুয়ারা। বুধবার তাঁদের আন্দোলন ষষ্ঠ দিনে পড়েছে। সেপ্টেম্বর মাসের পয়লা দিনটিতেই বিশ্বভারতীর কর্মচারীদের অগস্ট মাসের বেতন হওয়ার কথা ছিল। তেমনটাই নিয়ম বিশ্বভারতীতে। ঘটনাচক্রে সেই নিয়মভঙ্গ হয়েছে। বিশ্বভারতীর অথর্নীতি বিভাগের অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘বিশ্বভারতীর উপাচার্য চক্রান্ত করে এবং প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে এই কর্মকাণ্ড করেছেন। এর আগেও এই উপাচার্য বেতন বন্ধ করে দিয়েছিলেন।’’

Loading...

চলতি বছরেই এক বার বেতন পেতে দেরি হয়েছিল বিশ্বভারতীর স্থায়ী এবং অস্থায়ী মিলিয়ে মোট ৩ হাজার ৩০০ কর্মীর। জুনের বেতন পেতে জুলাইয়ের প্রায় অর্ধেক কেটে যায়। সেই পরিস্থিতি কি ফের তৈরি হল বিশ্বভারতীতে? তৈরি হচ্ছে গুঞ্জন।

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *