‘এবার ত্রিপুরায় খেলা দেখাবে তৃণমূল’, ফুটবল পায়ে বার্তা সাংসদদের

Loading...

‘খেলা হবে’ (Khela Hobe) স্লোগানটিকে আক্ষরিক অর্থেই নিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা-মন্ত্রীরা। তাই তো খেলা হবে দিবসের প্রাক্কালে ত্রিপুরায় ফুটবল পায়ে দেখা গেল অর্পিতা ঘোষ, শান্তনু সেন, আবিররঞ্জন বিশ্বাসদের। সঙ্গে অবশ্যই ছিলেন একসময় ভারতীয় ফুটবল দলের ক্যাপ্টেন, সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়। একত্রে তাঁদের বার্তা, ‘এবার ত্রিপুরাতেও খেলা দেখাবে তৃণমূল।’

তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে ১৬ অগাস্ট বাংলার পাশাপাশি ত্রিপুরাতেও পালিত হবে ‘খেলা হবে’ দিবস। সেই লক্ষ্যেই পড়শী রাজ্যে পৌঁছে গিয়েছেন তৃণমূল সাংসদরা। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার এবং রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসুও।

Loading...

অন্যদিকে, ভয় দেখিয়ে ত্রিপুরায় তৃণমূলকে আটকানো যাবে না বলেও এদিন বার্তা দেন ঘাসফুল শিবিরের নেতারা। দলীয় নেতাকর্মীদের উপর ক্রমাগত পুলিশি জুলুমের প্রতিবাদে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন ব্রাত্য-কাকলিরা। তাঁরা বলেন, ‘পরাধীন ত্রিপুরায় স্বাধীনতা দিবস পালন করবে তৃণমূল।’

মন্ত্রী ব্রাত্য বসু বলেন, ‘ত্রিপুরায় যদি তৃণমূল কংগ্রেসের কোনও ভিত্তি না থাকে, তাহলে সেখানে তাঁদের এত ভয় পাচ্ছে কেন BJP? তাঁদের আটকে দেওয়ার জন্য এত দমন পীড়নই বা কেন? সেখানে শিক্ষকদের ওপর যেভাবে ছাঁটাইয়ের খাঁড়া নেমে এসেছে, ১০ হাজার ৩২৩ জন শিক্ষককে যেভাবে রাতারাতি কর্মহীন করে দেওয়া হয়েছে, তার তীব্র বিরোধিতা করছি আমরা।’ ব্রাত্য বসু আরও বলেন, ‘এই লড়াইয়ে শিক্ষকদের পাশে রয়েছে তৃণমূল।’ পাশাপাশি, সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদারের অভিযোগ, ‘ত্রিপুরায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে মহিলাদের ভয় দেখাচ্ছে BJP। আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়েছে সেখানে। তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা সেলের নেত্রী হিসেবে ভারতের অন্যান্য রাজ্যে গিয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। কিন্তু ত্রিপুরার মতো কোথাও মহিলাদের উপর এমন দমন পীড়ন দেখিনি।’ রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেন বলেন, ‘যে উন্নয়ন প্রকল্পের সুবিধে বাংলার মানুষ পায়, ত্রিপুরা তা থেকে বঞ্চিত হবে কেন?’

Loading...

ত্রিপুরায় প্রাক্তন শাসকদল বামেদেরকেও কটাক্ষ করে ব্রাত্য বসু বলেন, ‘CPIM এখন কী করছে? বাংলার CPIM যে ভুল করেছে, ত্রিপুরায় সে ভুল করবেন না। BJP-র বিরুদ্ধে ভোট ভাগ হতে দেবেন না। BJP-র বিকল্প হিসেবে CPIM নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে ব্যর্থ হয়েছে। তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় BJP-র প্রধান প্রতিপক্ষ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছেন।’

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *