আমি পাকিস্তানি নই, ভারতীয়, তবে আমার শরীরে বইছে আফগান রক্ত : Arshi Khan

Loading...

 আফগানিস্তান (Afghanistan) জুড়ে এখন তালিবানি থাবা। কাবুলের বুকে এখন তালিবানদের (Taliban) উত্তপ্ত নিঃশ্বাস।  আতঙ্কের প্রহর গুনছেন আফগানিরা। তালিবান আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে গোটা বিশ্বজুড়েই। তারই মাঝে বিগ বস ১৪ প্রতিযোগী আরশি খানের (Arshi Khan) দাবি, ‘আমার শিকড়ে রয়েছে আফগান রক্ত।’

নাগরিকত্ব নিয়ে তারকাদের ট্রোল হওয়ার ঘটনা নতুন নয়। সম্প্রতি ট্রোলের মুখে পড়েছিলেন আরশি খান (Arshi Khan) । তবে আফগানি হওয়ার জন্য নয়। কিছু লোকজনের ধারণা আরশি পাকিস্তানি (Pakistani)। আর সেকারণেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র ট্রোলের মুখে পড়তে হয়ে আরশিকে। সম্প্রতি নাগরিকত্ত্ব নিয়ে ট্রোল হওয়া প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন আরশি। তিনি বলেন, ”আমরা নাগরিকত্ত্ব নিয়ে ট্রোল হওয়ার ঘটনা নতুন নয়। এই নিয়ে তৃতীয়বার আমাকে লক্ষ্য করা হয়েছে। ওঁরা ভাবেন, আমি পাকিস্তানি নাগরিক। এই একই কারণে কাজের জায়গাতেও অনেক কথা সহ্য করতে হয়েছে। আমি একটা কথা স্পষ্ট করে জানাতে চাই যে আমি ভারতীয়। আমার কাছে ভারত সরকারের অনুমোদিত পরিচয়পত্র রয়েছে। ”   

Loading...

তবে আরশি (Arshi Khan)  জানান, “আমি একজন আফগানি পাঠান, এবং আমার পরিবার ইউসুফ জাহির পাঠান গোষ্ঠীর অন্তর্গত। আমার দাদু আফগানিস্তান থেকে ভারতে চলে এসেছিলেন এবং উনি ভোপালের জেলার ছিলেন। আমার পরিবার যখন এদেশে চলে এসেছিল, তখন আমায় বয়স ছিল মাত্র ৪। আমার শিকড় আফগানিস্তানের, তবে আমি ভারতীয় নাগরিক।” আরশির বলেন, ”আফগানিস্তানের (Afghanistan) বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আমি উদ্বিগ্ন। ওখানকার পরিস্থিতির কথা ভাবলেই গায়ের লোম খাড়া হয়ে যাচ্ছে। বেশি চিন্তা হচ্ছে আফগান মহিলাদের নিয়ে। ছোটবেলায় এদেশে না চলে এসে আজ আমাকেও হয়ত তাঁদের মতো ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে থাকতে হত।”

প্রসঙ্গত, ১৯৯৬ থেকেল ২০০১ পর্যন্ত তালিবানদের দখলে ছিল আফগানিস্তান (Afghanistan)। তখন সেখানে শরিয়া আইন লাগু ছিল। তখন পুরুষসঙ্গী ছাড়া, মহিলাদের রাস্তায় বের হওয়াতে নিষেধাজ্ঞা ছিল, এমনকি মুখ ঢেকে বের হতে হত। নারীদের শিক্ষা, চাকরির অধিকার ছিল না। ফের একবার তালিবানি (Taliban) থাবায় আবারও একবার সেই পুরনো দিনে ফিরে গিয়েছেন আফগানিরা। 

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *