আফগানিস্তানে হিন্দু ও শিখ নাগরিকদের সুরক্ষার আশ্বাস কেন্দ্রের

Loading...

 আফগানিস্তানে (Afghanistan) সংখ্যালঘু হিন্দু এবং শিখ নাগরিকদের সুরক্ষা প্রদানে যাবতীয় ব্যবস্থা নেবে ভারত। এমনটাই আশ্বাস দিয়েছে বিদেশ মন্ত্রক (MEA)। মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বলেন, ‘আফগানিস্তানের পরিস্থিতির উপর নজর রয়েছে ভারতের। পারিপার্শ্বিক চাপ আফগানিস্তানের পরিস্থিতি আরও খরাপ করছে।’

এদিন বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র বলেন, ‘গতবছর আফগানিস্তান থেকে শিখ এবং হিন্দু সংখ্যালঘু বহু সংখ্যক নাগরিককে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে ভারত। এখনও আমরা ওখানে বসবাসকারী ভারতীয়দের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছি। আমরা তাঁদের সবরকম সহায়তা করব।’ কাবুলে ভারতীয় দূতাবাস বন্ধ করে দেওয়ার পরিকল্পনাও নিয়েছে ভারত। রটে যাওয়া এই খবর সম্পূর্ণ ভুয়ো বলে জানিয়েছেন অরিন্দম বাগচি।

Loading...

ইতিমধ্যেই ১০টির বেশি প্রদেশ নিজেদের দখলে নিয়ে ফেলেছে তালিবানরা (Taliban)। এর মধ্যে বেশ কিছু প্রদেশে বহু সংখ্যক ভারতীয় বসবাস করেন। বুধবারই মাজার শরিফ থেকে বিমানে উড়িয়ে আনা হয়েছে একাধিক ভারতীয় নাগরিককে। তবে আফগান উদবাস্তুদের ভারতে ঠাঁই দেওয়া হবে কিনা, তা নিয়ে মুখ খুলতে চাননি অরিন্দম বাগচি।

আফগানিস্তানে তালিবানি দাপট অব্যহত। ন্যাটো এবং আমেরিকান সেনা সরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় সাফল্য পেল তালিবানরা। শুক্রবার ব্যাপক সংঘর্ষের পর আফগানিস্তানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর কান্দাহারও দখল করে নেওয়ার দাবি করেছে এই সশস্ত্র গোষ্ঠী। জানা গিয়েছে, দক্ষিণ আফগানের প্রায় সমস্ত প্রদেশেই এখন তালিবানি কতৃত্ব প্রতিষ্ঠা হয়েছে। এখন সামনে রয়েছে শুধু কাবুল। এই মুহূর্তে কাবুলের প্রায় ৫০ কিলোমিটারের মধ্যে এস গিয়েছে তালিবানরা। একতালিবান মুখপাত্র টুইট করে বলেন, ‘শত্রুরা পালিয়ে গিয়েছে…ডজনখানেক সেনার গাড়ি, অস্ত্র ও বিস্ফোরক মুজাহিদিনদের হাতে এসেছে’।

Loading...
Loading...
Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *